খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলায় ইতিমা মন্ডল এর বিভিন্ন অভিযোগের প্রতিবাদে সুরঞ্জন সুতার এর সংবাদ সম্মেলন

0
71

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা উপজেলার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক সুরঞ্জন সুতার এর নামে মিথ্যা মামলা ও বিভ্রান্তিকর কুরুচিপুর্ন সংবাদ প্রচার ও প্রকাশের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন। ৩০ জানুয়ারী ২০২৩ সকাল ১১.০০ জাতীয় প্রেসক্লাবে জহুর হোসেন চৌধুরী হলে সংবাদ সম্মেলন অনুস্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সুরঞ্জন সুতার। লিখিত বক্তব্য থেকে জানা যায় অভিযোগকারী ইতিমা মন্ডল তার প্রতিবেশী এবং সম্পর্কে ভাতিজি। মেয়েটি ঢাকায় মিডিয়া জগতে সে একজন মডেল তারকা হিসাবে নিজেকে দাবি করেন। হঠাৎ এই মেয়েটি আমার পাড়া-প্রতিবেশী মেয়ে সে সমাজের বিভিন্ন জায়গায় আমার নামে খুব বাজে মন্তব্য করছে। এবং জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে আমার নামে দুটি মিথ্যা মামলা দিয়েছে যা আদালতে চলমান রয়েছে। কিন্তু যে জমির বিষয় নিয়ে আমার নামে মামলা করে এবং বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ করে সেই জমি ভোগ দখল কারি কিংবা ক্রয়কারী আমি নই কিংবা আমার পরিবারের কেউ নই। ইতিমা মন্ডল আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা দোষারোপ করছে। সকল সাংবাদিক সমাজ, গণ্যমান্য ব্যক্তি বর্গ ও প্রশাসনের এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট আমার আকুল আবেদন সত্যিকারের দোষী কে নির্ণয় করুন দোষী ব্যক্তি কে সাজা দিন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সুরঞ্জন সুতার জানান তিনি একজন ব্যাবসায়ী ও সমাজ সেবক। তিনি খুলনার প্রগতি বিদ্যাপীঠ স্কুল এর ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বাংলাদেশ। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের বটিয়াঘাটা উপজেলার জয়েন্ট সেক্রেটারি। বিদ্যাবাড়ী কিন্ডারগার্টেন স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা। এছাড়াও শৈল রংপুর মুজরঘোটা অঞ্চলে আমি পাঁচটি মন্দির নির্মাণ, বৃদ্ধাশ্রম নির্মাণ এবং চিকিৎসালয় নির্মাণ কাজ করেছি আমার নিজ অর্থায়নে। এছাড়াও আমার উপজপলার বিভিন্ন অঞ্চলে পানির সংকট দেখা দেওয়ায় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষ্যেনিজ অর্থায়নে ১৭টি গভীর নলকূপ স্থাপন করেছি। বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসায় উন্নয়নের কাজে অর্থ প্রদান,গরিব দরিদ্র অসহায় মানুষের মেয়ের বিবাহে অর্থদান, শীতকালীন বস্ত্র বিতারনসহ সমাজের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক ও সামাজিক কর্মকাণ্ডের সাথে আমি জড়িত।

ইতিমা মন্ডলের সাথে বা তার পরিবারের কোন সদস্যের সাথে আমার কোন বিরোধ ছিল না বা এখনো নেই। শুধুমাত্র সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য উক্ত সংবাদের আমার নাম জড়ানো হয়েছে এটা কোন ভাবেই সত্য নয়। এ কারণে আমি সকল সাংবাদিক বন্ধু ও প্রশাসনের প্রতি আহবান জানাই আপনারা সরেজমিন তদন্ত পূর্বক বিষয়টি খতিয়ে দেখুন। আমি চাই আপনারা সত্যটা লিখুন সত্যকে প্রকাশ করুন।
অনতিবিলম্বে মামলা প্রত্যাহার সহ সকল ধরনের অপপ্রচার থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানান। অন্যথায় তার বিরুদ্ধে মান হানী মামলা করার কথা জানান

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে